গৃহহীনের ক্যামেরা

এই কলামেই গত বছর (৩০ মার্চ ২০১৭) গৃহহীনদের নিয়ে লিখেছিলাম, ‘ঢাকা-লন্ডন এক কাতারে‘। অর্থাৎ গৃহহীন মানুষ যেমন ঢাকায় আছে, তেমনি লন্ডনসহ উন্নত বিশ্বের মানুষও ফুটপাতসহ খোলা জায়গায় রাতযাপন করে। ১৮ জুলাই ব্রিটেনের দ্য গার্ডিয়ান লিখেছে, ‘গিভ আ হোমলেস পারসন আ ক্যামেরা, অ্যান্ড দে উইল লুক এট দ্য সিটি ইন আ নিউওয়ে’ অর্থাৎ গৃহহীন মানুষকে একটি ক্যামেরা দাও, শহরকে তারা ভিন্নভাবে উপস্থাপন করবে। তারা কীভাবে ভিন্নভাবে উপস্থাপন করবে? বলা বাহুল্য, আমরা যারা গৃহে বাস করি, আমাদের কাছে পৃথিবী একরকম; যারা বাইরে জীবন অতিবাহিত করে, তাদের কাছে অন্যরকম।

গার্ডিয়ানের খবরটি আসলে গৃহহীনদের নিয়ে কাজ করা দাতব্য প্রতিষ্ঠানের উদ্যোগে আয়োজিত এক ছবি প্রদর্শনীর সংবাদ। ইংল্যান্ডের গৃহহীনদের তোলা ছবি নিয়ে ম্যানচেস্টারে যা প্রদর্শিত হয়; এই আয়োজনের উদ্দেশ্য গৃহহীনদের সহযোগিতার জন্য ফান্ড তৈরি। একজন ফটোগ্রাফার বলছেন, ফুটপাতের জীবন ভয়ঙ্কর। প্রতিমুহূর্তে এখানকার চিত্র বদলায়। এখানে ঘুমানো নিয়েও যে দ্বন্দ্ব হয়, তা দেখার মতো। আরেকজন বলছে, আমার ছবির মাধ্যমে পৃথিবীর অন্ধকার দিকটি তুলে ধরছি, যেটি মানুষ দেখে না।

আসলে গৃহহীনরা নিজেরাই ছবি ও খবরের বিষয়, যখন তারাই ছবি তোলেন, বিষয়টি নিশ্চয়ই অন্য মাত্রা দেবে। রাতে শহরের ফুটপাতে, রাস্তাঘাটে, খোলা ময়দানে কী হয়, সাধারণ হিসেবে তা সচরাচর আমাদের দেখা সম্ভব হয় না; কিন্তু যারা সেখানেই বাস করে, তাদের জন্য সে চিত্র তুলে ধরা কঠিন নয়।

ইংল্যান্ডের গৃহহীনরা ছবি তুলছে- তাদের ছবি দিয়ে প্রদর্শনী হচ্ছে। বিষয়টি আমাদের কাছে আশ্চর্যের হতে পারে। কারণ, ছবি তোলার জন্য যে সাধারণ জ্ঞানের প্রয়োজন, তা আমাদের গৃহহীনদের আছে কি? আসলে আমাদের গৃহহীন, আর উন্নত বিশ্বের গৃহহীন হওয়ার পটভূমি ও কারণ এক নয়। এখানে নদীভাঙনসহ নানা প্রাকৃতিক দুর্যোগে ভিটা হারায় মানুষ। আবার দারিদ্র্য নিয়ে শহরে এসে উচ্চমূল্যের ভাড়া বাসায় অনেকেই থাকতে পারে না। তখন ফুটপাত ও বস্তিই ভরসা। এসব মানুষের জন্য ছবি তোলা স্বপ্নের মতো। তবে কেউ এগিয়ে এলে, ক্যামেরা দিলে হয়তো তারাও ছবি তুলতে পারবে। আর ম্যানচেস্টারের ছবি প্রদর্শনী যেমন গৃহহীনদের সাহায্য ওঠানোর জন্য, তেমনি তাদের প্রতি সামাজিক দৃষ্টিভঙ্গি পাল্টানোও উদ্দেশ্য।

মূলত উন্নত বিশ্বে মানসিক সমস্যা, মাদকাসক্তিসহ অন্যান্য শারীরিক সমস্যায় মানুষ গৃহহীন হয়। এ গৃহহীনদের নিয়ে উদ্বেগ গোটা বিশ্বেরই। প্রত্যেক দেশই তাদের অবস্থা অনুযায়ী এ সংকট মোকাবেলায় বদ্ধপরিকর। আমাদের উদ্যোগও কম নয়। দেশে বর্তমানে ভূমিহীন মানুষের সংখ্যা ১০ লাখ ৬৯ হাজার ২৬৪ জন। আর গৃহহীন মানুষ রয়েছে দুই লাখ ৮০ হাজার ৬৩৪ জন। তাদের মধ্যে এক লাখ গৃহহীন পরিবারকে তাদের নিজ জমিতে ঘর নির্মাণ করে দেওয়ার প্রতিশ্রুতি রয়েছে সরকারের।

গৃহহীন সমস্যাটি যখন জটিল বিষয়, এ সমস্যায় যখন গলদঘর্ম সরকার-প্রশাসন, তখন তাদের ক্যামেরায় ছবির আলোচনা পরিহাসের মতোই শোনায়। কিন্তু উদ্যোগটি যখন তাদের সাহায্যার্থেই, তখন তা যুক্তিযুক্তই মনে হয়। আবার ছবি তোলা যখন শিল্প, তখন ঠিক গৃহহীন মানুষদের চোখে তা কেমন দেখা যায়- সেটাও ভাবনার বিষয়। তাদের নিয়ে দেশেও এমন আয়োজন হলে, তারাও হয়তো আমাদের শহরকে ভিন্নভাবে তুলে ধরত।

Post By মাহফুজ মানিক (451 Posts)

Mahfuzur Rahman Manik, Profession: Journalism, Alma Mater: University of Dhaka, Workplace: The Daily Samakal, Dhaka, Birthplace: Chandpur, Twitter- https://twitter.com/mahfuzmanik, Contact: mahfuz.manik@gmail.com

Website: →

Connect


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *