Mahfuzur Rahman Manik
ফেসবুকের মূল্য
ফেব্রুয়ারী 2, 2016

A 3D plastic representation of the Facebook logo is seen in this illustration in Zenica, Bosnia and Herzegovina, May 13, 2015. REUTERS/Dado Ruvicদিন দিন আমরা যখন ব্যস্ত হয়ে উঠছিলাম; ব্যস্ত জীবনে যখন আরেকজনের খবর নেওয়ার ফুরসৎ ছিল না; যখন আমরা আত্মকেন্দ্রিক হয়ে উঠছিলাম; শহুরে জীবনের এককেন্দ্রিকতা যখন আমাদের আচ্ছন্ন করে ফেলছিল; যখন আমরা স্বার্থপর মানুষে পরিণত হয়েছিলাম; তখনই কি ফেসবুকের আগমন? অনেকে তা বলতেই পারেন। ২০০৪ সালে ফেসবুক এসে বলছে, 'কানেক্ট উইথ ফ্রেন্ডস অ্যান্ড দ্য ওয়ার্ল্ড অ্যারাউন্ড ইউ অন ফেসবুক'। বলছে, আপনার বন্ধুবান্ধব কাছে কিংবা দূরে আছে, তাদের সঙ্গে সহজে যোগাযোগ হচ্ছে না? আপনার অবস্থা তাদের জানাতে পারছেন না? তাহলে দেরি না করে এখনি যুক্ত হোন ফেসবুকে।
ফেসবুকের কথা শুনেছে মানুষ। বুধবার ফেসবুক নিউজরুমে প্রকাশিত ২০১৫ সাল ও একই বছরের চতুর্থ ত্রৈমাসিক প্রতিবেদনে দেখা গেছে, ২০০৪ সালে প্রতিষ্ঠিত ফেসবুকের মাসিক সক্রিয় ব্যবহারকারী প্রায় একশ' ষাট কোটি। বাংলাদেশেই রয়েছে ১ কোটি ৭০ লাখ ব্যবহারকারী। বলাবাহুল্য, ফেসবুক সত্যিই অচেনা মানুষকে বন্ধু করেছে, হারিয়ে যাওয়া বন্ধুকে খুঁজে দিয়েছে, দূরের বন্ধুকে কাছে এনেছে, যোগাযোগহীনতার একটা অবসান ঘটিয়েছে। তারপরও মানুষের আত্মকেন্দ্রিকতা, স্বার্থপরতার অবসান কতটা ঘটেছে তা ভিন্ন প্রসঙ্গ।

তবে এটা ঠিক, ফেসবুক প্রত্যেক ব্যক্তিকে গুরুত্ব দিয়েছে। আগে যেমন কেউ কারও জন্মদিন জানত না, ফেসবুক তা বন্ধুকে জানিয়ে শুভেচ্ছার ব্যবস্থা করেছে। ফেসবুকের এই ব্যক্তিকেন্দ্রিক গুরুত্বের বিষয়টি অবশ্য ফেসবুকেরই এক বন্ধুর পর্যবেক্ষণে এসেছে। তো ফেসবুক যে প্রত্যেককে এত গুরুত্ব দিচ্ছে, ব্যক্তির মতামত প্রকাশ করছে, ছবি অন্যদের কাছে ছড়িয়ে দিচ্ছে, তার অবস্থা (স্ট্যাটাস) কাঙ্ক্ষিত মানুষকে জানাচ্ছে; চাকরি, বিয়ে-শাদি, ঘোরাঘুরি ইত্যাদি ঘটনা বিশ্ববাসীকে জানাচ্ছে; সে ফেসবুকের কাছে মূল্য বিচারে আসলেই আপনার দাম কত? ফেসবুকের বুধবারের প্রতিবেদন ধরে ইংল্যান্ডের গার্ডিয়ান সে বিষয়টিই এনেছে তার 'হাউ মাচ আর ইউ ওয়র্থ টু ফেসবুক?' বা 'ফেসবুকের কাছে আপনি কতটা দামি' শিরোনামের প্রতিবেদনে।
গার্ডিয়ানের এ প্রশ্নের প্রাসঙ্গিকতা রয়েছে একই ঘটনায় প্রভাবশালী ফোর্বস ম্যাগাজিনের প্রতিবেদনেও। ফোর্বস বলছে, ফেসবুকের বুধবারের প্রতিবেদনে যে আয় দেখানো হয়েছে সে অনুযায়ী ফেসবুক প্রতিষ্ঠাতা মার্ক জাকারবার্গ বিশ্বের ষষ্ঠ ধনী। এর অর্থ ফেসবুক যেমন ব্যবহারকারীদের দিচ্ছে, তেমনি পাচ্ছেও। এ হিসাব করেই গার্ডিয়ান বলছে, ফেসবুকের কাছে বিশ্বের সবাই সমান নয়। উত্তর আমেরিকা, বিশেষত যুক্তরাষ্ট্র ও কানাডার ব্যবহারকারীরা সবচেয়ে দামি। তিন মাসে তাদের প্রত্যেকের দাম ১৩ দশমিক ৫৪ ডলার। ইউরোপের ব্যবহারকারীদের দাম তার প্রায় তিন ভাগের এক ভাগ_ ৩ দশমিক ৭৩ ডলার। আর বাদবাকি সবার দাম ১ Facebook-incomeদশমিক ২২ ডলার। এলাকাভেদে ফেসবুকের বিজ্ঞাপনের আয় সূত্রেই গ্রাহকের এ মূল্য। যেখানে গত তিন মাসে যুক্তরাষ্ট্র থেকে বিজ্ঞাপন বাবদ আয় দুইশ' কোটি ৮০ লাখ ডলার। এর পরের মার্কেট ইউরোপে_ একশ ৪০ কোটি। গার্ডিয়ান এ হিসাব করলেও ফেসবুক করছে কি-না জানা নেই। তবে ফেসবুকের আয় আমাদের মতো দেশে কম হলেও হতাশ হওয়ার কিছু নেই। ফেসবুকের সুযোগ-সুবিধা আমেরিকানরা যা ভোগ করছে, আমাদের জন্যও তা-ই। ফেসবুকের কাছে সব ব্যবহারকারী সমান বলেই মনে হয়। অনুন্নত দুনিয়ার বাসিন্দা বলে ফেসবুক ব্যক্তির প্রোফাইল ছবিটি ছোট করে প্রকাশ হয়েছে_ এমন অভিযোগ নিশ্চয়ই কেউ শোনেনি; শোনার কথাও নয়। তবে ফেসবুক যে ব্যবহারকারীকে গুরুত্ব দিয়ে দিন দিন নিজেই মূল্যবান হয়ে উঠছে, তা লক্ষণীয়। ৩২ বছর বয়সেই মার্ক জাকারবার্গ বিশ্বের ষষ্ঠ ধনী। ফেসবুকের এ জয়জয়কার অবস্থা চলতে থাকলে মার্ক যে বিল গেটসকেও ছাড়িয়ে যাবেন_ ফোর্বস ম্যাগাজিন নিশ্চয় সে হিসাব করে রাখবে।

ট্যাগঃ , , , , ,

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।