Mahfuzur Rahman Manik
লম্বা কিংবা খাটো
জুলাই 27, 2016

Tall_Small-peopleমানুষের বৈচিত্র্য তার ব্যক্তিত্বে, আচরণে, চরিত্রে এবং উচ্চতায়ও। যদিও দুনিয়ার এক মানুষের সঙ্গে অন্য মানুষের চেহারায় মিল না থাকলেও উচ্চতায় মিল থাকতে পারে। সেদিক থেকে উচ্চতাগত বৈচিত্র্য কম। তারপরও লম্বা, মধ্যম, খাটো_ তিন ধরনের বিশেষণে বিশেষায়িত করা যায়। এ বিশেষণ পৃথিবীর সবার জন্য সত্য। তবে ব্যক্তিগত হিসেবের বাইরে দেশ-অঞ্চলভেদেও পার্থক্য দেখা যায়। মঙ্গলবার বিবিসি অনলাইন উচ্চতা নিয়ে এক গবেষণার খবর দিয়েছে। তাতে দেখা যাচ্ছে, নেদারল্যান্ডসের পুরুষ ও লাটভিয়ার নারী সবচেয়ে বেশি লম্বা। ই-লাইফ জার্নালে প্রকাশিত গবেষণাটিতে উচ্চতায় গত একশ' বছরের ট্রেন্ড বিশ্লেষণ করা হয়েছে। গবেষণায় বাংলাদেশ প্রসঙ্গও এসেছে। যেখানে বেঁটের তালিকায় বাংলাদেশের নারীরা রয়েছেন দ্বিতীয় স্তরে।

মানুষের উচ্চতা যেমন জিন ও পরিবেশগত বিষয়ের ওপর নির্ভর করে, তেমনি নির্ভর করে তার খাদ্য ও পুষ্টির ওপর। সার্বিক সুস্থতা ও হরমোনের ওঠানামার সঙ্গেও উচ্চতার সম্পর্ক রয়েছে। সাধারণত দেখা যায়, লম্বা মা-বাবার সন্তান লম্বা হয়। বেঁটে দম্পতির সন্তান বেঁটে হয়। তবে ব্যতিক্রমও রয়েছে। অনেক সময় লম্বা দম্পতির সন্তান যেমন বেঁটে হয়, তেমনি বেঁটে দম্পতির সন্তানও লম্বা হতে দেখা যায়।
উচ্চতার দিক থেকে বলা চলে, বাংলাদেশের মানুষের অবস্থান মাঝামাঝি পর্যায়ে। গালিভারসের গল্পের মতো

এখানকার মানুষ যেমন একেবারে অধিক লম্বা নয়, তেমনি একেবারে বেঁটেও নয়। নেদারল্যান্ডসের পুরুষের গড় উচ্চতা ৬ ফুট। আমাদের এখানে ৫ ফুট ৪ ইঞ্চি। তবে সাম্প্রতিক সময়ে দেখা যাচ্ছে, মানুষ খাটো হচ্ছে। বলা হয়, পৃথিবীর প্রথম মানুষ হজরত আদম (আ.) ছিলেন ষাট হাত। এর পর মানুষের উচ্চতা কমে এ পর্যায়ে এসেছে। এমনকি এ মিথও রয়েছে, কমতে কমতে মানুষ এমন পর্যায়ে যাবে যখন বেগুন নাকি লাঠি দিয়ে পাড়তে হবে। বিজ্ঞানীরা অবশ্য এও বলছেন, বৈশ্বিক উষ্ণতার কারণে নাকি মানুষ খাটো হচ্ছে। খাটো মানুষ হিসেবে অবশ্য পিগমিরা বিশেষ পরিচিত। মধ্য আফ্রিকার এ মানুষদের উচ্চতা ১৩ বছর বয়সের পর আর বাড়ে না।
উচ্চতার দিক থেকে বাংলাদেশের জন্য আশঙ্কার খবর হলো খর্বকায় শিশু। হিসাব বলছে, এখনও আমাদের প্রায় অর্ধেক শিশু অপুষ্টিতে ভুগছে। মায়ের অপুষ্টির কারণে যেমন সন্তান অপুষ্টিতে ভোগে, তেমনি খর্বকায় শিশুও জন্ম দেয়। খর্বাকৃতির সঙ্গে স্যানিটেশনের সম্পর্ক ওতপ্রোতভাবে জড়িত। আমাদের সার্বিক অপুষ্টি ও স্যানিটেশন সচেতনতার অভাব খর্বকায় শিশুর সংখ্যা বাড়াচ্ছে। যদিও খোলা টয়লেট বন্ধকরণ ও সঠিক স্যানিটেশন ব্যবস্থা গ্রহণে বাংলাদেশের উন্নতি লক্ষণীয়। একই সঙ্গে অপুষ্টি কমাতে পারলে সুস্থ-সবল শিশু জন্মলাভ করবে।
Heightতবে লম্বা হোক কিংবা খাটো হোক মানুষ হিসেবে সবাই সমান। মানুষ হিসেবে মর্যাদায় সবার সমান। তারপরও বলা বাহুল্য, লম্বা সবাই পছন্দ করেন। সিবিএস নিউজ এ জন্যই বুঝি আলোচ্য গবেষণা প্রতিবেদনের শিরোনামই করেছে, হুইচ ন্যাশনস বোস্ট ওয়ার্ল্ডস টলেস্ট পিপল? কোন জাতি বিশ্বের লম্বা মানুষ বলে বাহাদুরি করতে পারে? লম্বা নিশ্চয়ই বাহাদুরি। তবে এটাও জানা থাকা দরকার, বেঁটে মানুষরাই বরং প্রকৃতির জন্য বেশি উপকারী। কারণ তার জন্য ছোট পোশাক লাগে, কম জ্বালানি প্রয়োজন, কম ভোগ করে। কথা তা নয়। প্রকৃতির ভারসাম্যের জন্যই বুঝি লম্বা-খাটো উভয়ই প্রয়োজন।

 

ট্যাগঃ , , , , , , , ,

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।