Monthly Archives: এপ্রিল ২০১৪

মেধাসম্পদ ও মেধার মূল্যায়ন

intellectual-property-e1266844349931মানুষের সৃষ্টির সবকিছুর মূলে রয়েছে মেধা। লেখকরা মেধা দিয়ে লেখেন। বিজ্ঞানী-গবেষকরা তা দিয়ে নতুন নতুন আবিষ্কার করেন। শিল্পীরা শিল্পকর্ম রচনা করেন এর মাধ্যমে। ব্যবসায়ী মেধা খাটিয়ে ব্যবসা করেন। কার্টুনিস্ট, ফটোগ্রাফার থেকে শুরু করে মুচি পর্যন্ত প্রত্যেক শ্রেণী-পেশার মানুষ স্ব-স্ব মেধা দিয়েই কাজ করেন। এমনকি শারীরিক শক্তি দিয়ে মানুষ যে কাজ করে, সেখানেও মেধা গুরুত্বপূর্ণ। প্রতিটি কাজের আলাদা কৌশল রয়েছে। যিনি মাটি কাটেন তিনি এর কৌশল জানেন। মেধা খাটিয়েই তিনি এ কৌশল ব্যবহার করেন।
সব কাজের মধ্যেও বিশেষ কিছু বিষয় রয়েছে, যেগুলো মানুষ সরাসরি মেধার সাহায্যে করে থাকে। যার মাধ্যমে মানুষের সৃজনশীলতা ও উদ্ভাবনী শক্তির প্রমাণ পাওয়া যায়। আজকের বিশ্ব মেধাসম্পদ দিবস আসলে এই সৃজনশীলতা ও সৃষ্টিশীলতাকে উৎসাহিত করার জন্যই পালন করা হয়। Continue reading

বইয়ের অনিঃশেষ আবেদন

Book-tableইন্টারনেট আর প্রযুক্তিনির্ভর এই সময়ে বিশ্বগ্রন্থ ও গ্রন্থস্বত্ব দিবস বিশেষ গুরুত্বের দাবিদার। আজকের দিনে প্রযুক্তির কল্যাণে অন্যান্য জিনিসের মতো বইও সহজলভ্য হয়েছে; গুরুত্বপূর্ণ বই বিনামূল্যে না পেলেও ইন্টারনেটে টাকা দিয়ে সহজেই পাওয়া যাচ্ছে; মানুষের নিত্যসঙ্গী মোবাইলেও বই পড়া যাচ্ছে কিন্তু তার পরও পড়ার অবস্থা কেমন, তা বলার অপেক্ষা রাখে না। আমাদের পাঠাভ্যাস কমার জন্য হয়তো ইন্টারনেট ও প্রযুক্তি এককভাবে দায়ী নয়, তার পরও এগুলো যে অন্যতম কারণ সেটা সবাই বলবেন। পাঁচ-ছয় বছর আগেও অনেকেই হয়তো বিনোদনের উপায় হিসেবে বই পড়েছেন। এখন সে জায়গাটা অনেক ক্ষেত্রেই হয়তো ফেসবুক কিংবা ইন্টারনেট দখল করেছে। এ ছাড়া টিভি চ্যানেলসহ বিনোদনের আরও নানা উপকরণ মানুষের হাতের মুঠোয় এসেছে। Continue reading

শুভেচ্ছা কার্ড

Naboborsha-Card

প্রধানমন্ত্রীর শুভেচ্ছা কার্ডে ব্যবহৃত অটিস্টিক শিশু শিল্পী রিশাত হোসেন’র আঁকা ছবি

বৈশাখ দরজায় কড়া নাড়ছে। বাংলা নববর্ষবরণ করতে চলছে জোর প্রস্তুতি। সংবাদমাধ্যমে ইতিমধ্যেই নানা আয়োজন দেখছি আমরা। এ যে বাঙালির প্রাণের উৎসব। প্রতিবছর পহেলা বৈশাখে মানুষ যেভাবে স্বতঃস্ফূর্ত আনন্দে মেতে ওঠে তা দেখার মতো।
প্রতিটি উৎসব, আনন্দের উপলক্ষ মানুষ তার প্রিয়জনের সঙ্গে ভাগাভাগি করতে চায়। একত্রে কাটাতে চায়। প্রিয় মানুষ, আত্মীয়-স্বজন, বন্ধু-বান্ধব দূরে থাকলেও তাদের নিমন্ত্রণ করেন। নিমন্ত্রণের সাধারণ ও প্রচলিত মাধ্যমটা বলা চলে কার্ড। বিয়ের কার্ড, ঈদকার্ড, নববর্ষের কার্ডসহ নানা উৎসবে নানা রকম কার্ড উপহার দেয় একে অপরকে। এ কার্ড আগে প্রধানত হাতে হাতে পাঠানো হতো। এখনও সে প্রচলন আছে, তবে ইন্টারনেটের বদৌলতে ফেসবুক কিংবা মেইলেই অনেকে তা পাঠিয়ে থাকেন। যে যেভাবেই দিক সবাই চান তার কার্ডটা সুন্দর হোক। Continue reading