Tag Archives: ফেসবুক

পোকেমন আলোড়ন

pokemon-go-demo-londonআনন্দবাজার পত্রিকা লিখেছে, প-য়ে পাগলামি প-য়ে পোকেমন। কিন্তু পোকেমন নিয়ে মাতামাতি একে ‘পাগলামি’ ছাড়িয়ে সিরিয়াসের চেয়েও বড় বিষয়ে পরিণত করেছে। পোকেমন নিয়ে হেন ঘটনা নেই, যা ঘটেনি। পোকেমন মানুষ হত্যা করেছে। পোকেমন প্রাণ বাঁচিয়েছে। পোকেমনের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। এটা দিয়ে পর্যটক আকর্ষণের চেষ্টা হয়েছে। এর বিরুদ্ধে ফতোয়া জারি হয়েছে। দেশে দেশে এটি নিষিদ্ধ হচ্ছে। একজন শিক্ষকতা ছেড়ে পোকেমন খেলোয়াড় হয়েছেন। এর জন্য আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর তরফ থেকে নানা সতর্কতাও জারি হয়েছে।
যদিও আদতে এটি একটি খেলা। মোবাইলের গেম খেলা। পূর্ণ নাম পোকেমন গো। তবে এটি আর দশটি খেলার মতো নয়। মোবাইলে এটি খেলার সঙ্গে সঙ্গে পোকেমন ধরার জন্য বাইরে যেতে হয়। গেমটিতে ভালো করার কৌশল হলো ভিন্ন ভিন্ন এলাকায় যেতে হবে আর হাঁটার সময় আস্তে আস্তে হাঁটতে হবে, কখনও কখনও একটু অপেক্ষা করার পর একটি এলাকায় নতুন পোকেমন তৈরি হয়। এটি ধরতে গেমারকে এমনকি দুই থেকে পাঁচ কিলোমিটার পর্যন্ত হাঁটতে হতে পারে। পোকেমনের শুরুটা দুই দশক আগে হলেও নতুনভাবে জুলাইয়ের প্রথম সপ্তাহে আসে যুক্তরাষ্ট্রে। এর পর ধীরে ধীরে বিভিন্ন দেশে চালু হয়। Continue reading

ফেসবুকের মূল্য

A 3D plastic representation of the Facebook logo is seen in this illustration in Zenica, Bosnia and Herzegovina, May 13, 2015. REUTERS/Dado Ruvicদিন দিন আমরা যখন ব্যস্ত হয়ে উঠছিলাম; ব্যস্ত জীবনে যখন আরেকজনের খবর নেওয়ার ফুরসৎ ছিল না; যখন আমরা আত্মকেন্দ্রিক হয়ে উঠছিলাম; শহুরে জীবনের এককেন্দ্রিকতা যখন আমাদের আচ্ছন্ন করে ফেলছিল; যখন আমরা স্বার্থপর মানুষে পরিণত হয়েছিলাম; তখনই কি ফেসবুকের আগমন? অনেকে তা বলতেই পারেন। ২০০৪ সালে ফেসবুক এসে বলছে, ‘কানেক্ট উইথ ফ্রেন্ডস অ্যান্ড দ্য ওয়ার্ল্ড অ্যারাউন্ড ইউ অন ফেসবুক’। বলছে, আপনার বন্ধুবান্ধব কাছে কিংবা দূরে আছে, তাদের সঙ্গে সহজে যোগাযোগ হচ্ছে না? আপনার অবস্থা তাদের জানাতে পারছেন না? তাহলে দেরি না করে এখনি যুক্ত হোন ফেসবুকে।
ফেসবুকের কথা শুনেছে মানুষ। বুধবার ফেসবুক নিউজরুমে প্রকাশিত ২০১৫ সাল ও একই বছরের চতুর্থ ত্রৈমাসিক প্রতিবেদনে দেখা গেছে, ২০০৪ সালে প্রতিষ্ঠিত ফেসবুকের মাসিক সক্রিয় ব্যবহারকারী প্রায় একশ’ ষাট কোটি। বাংলাদেশেই রয়েছে ১ কোটি ৭০ লাখ ব্যবহারকারী। বলাবাহুল্য, ফেসবুক সত্যিই অচেনা মানুষকে বন্ধু করেছে, হারিয়ে যাওয়া বন্ধুকে খুঁজে দিয়েছে, দূরের বন্ধুকে কাছে এনেছে, যোগাযোগহীনতার একটা অবসান ঘটিয়েছে। তারপরও মানুষের আত্মকেন্দ্রিকতা, স্বার্থপরতার অবসান কতটা ঘটেছে তা ভিন্ন প্রসঙ্গ। Continue reading

স্মৃতিচিহ্নে ফেসবুক

remembranceজীবনের সব অনিশ্চয়তার মধ্যে সবচেয়ে নিশ্চিত বিষয় মৃত্যু। মৃত্যু ছাড়াও মানুষ নানাভাবে হারিয়ে যেতে পারে। কেউ হারিয়ে গেলেও কিছু স্মৃতিচিহ্ন রেখে যায়। যেটা তার প্রমাণ বহন করে যে তিনি একদিন ছিলেন। সন্তান-সন্ততি রেখে কেউ মারা গেলে তারাই বড় স্মৃতিচিহ্ন। আরও নানা বিষয়ও তার স্মৃতিচিহ্ন হতে পারে। বড় কেউ মারা গেলে তার বাসভবন, থাকার জায়গা অন্যদের কাছে স্মারক হয়ে ওঠে। যেমন কুমিল্লায় নজরুলের স্মৃতিচিহ্ন কিংবা কুষ্টিয়ায় রবীন্দ্রনাথের স্মৃতিচিহ্ন ইত্যাদি। সাধারণ কিছু কারও কাছে স্মৃতির বিষয় হয়ে থাকতে পারে। কারও রেখে যাওয়া ডায়েরি, লেখা, ছবি, বক্তৃতা কিংবা ব্যবহার্য জিনিসপত্র ইত্যাদিও ব্যক্তির স্মৃতি বহন করে। এর সঙ্গে নতুন যোগ হয়েছে ফেসবুক।
সাম্প্রতিক সময়ে কেউ মারা গেলে সংবাদমাধ্যমে খবরের সঙ্গে তার শেষ ফেসবুক স্ট্যাটাসও জানানো হয়। Continue reading

পুতিনের ফিরে অাসা

Putin-bbc

সম্প্রতি কাঠঠোকরার পিঠে একজন বেজির উড়ে চলার ছবি খুবই জনপ্রিয় হয়েছিল। ছবি- বিবিসি বাংলা

রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন কতদিন লোকচক্ষুর আড়ালে ছিলেন? অস্ট্রেলিয়ার বিজনেস ইনসাইডার একেবারে সেকেন্ড ধরে তার হিসাব দিচ্ছে_ ১০ দিন ২১ ঘণ্টা ৪ মিনিট ২০ সেকেন্ড। পুতিনের উধাও হয়ে যাওয়ার পর থেকেই নানা গুজব ছড়িয়ে পড়ে ইন্টারনেটে। পুতিন আকস্মিকভাবে তার কাজাখস্তান সফর বাতিল করেন। এরপর দক্ষিণ ওসেটার সঙ্গে একটি চুক্তি হওয়ার কথা থাকলেও সে দেশের প্রতিনিধিদের মস্কো আসতে নিষেধ করা হয়। দেশটির অভ্যন্তরীণ গোয়েন্দা সংস্থা এফএসবির বার্ষিক বৈঠকে উপস্থিত থাকার কথা থাকলেও তিনি ছিলেন না।
বিশ্বের অন্যতম প্রভাবশালী দেশের প্রভাবশালী প্রেসিডেন্টের দিকে সবার নজর থাকাই স্বাভাবিক। পূর্ব ঘোষণা ও স্পষ্ট কারণ ছাড়া লোকচক্ষুর অন্তরাল হওয়ায় বিশ্বব্যাপী আলোচনা ও গুজবের ঝড় উঠে। Continue reading

বাংলিশ-হিংলিশ

Bangla-languageবাংলার সঙ্গে ইংরেজি বা অন্যান্য ভাষার মিশ্রণে কথা বলা, মেসেজ করা কিংবা যে কোনো ধরনের যোগাযোগ নিয়ে আলোচনা-সমালোচনার অন্ত নেই। বিশেষ করে শিক্ষিত তরুণ প্রজন্ম তাদের যোগাযোগে প্রধানত বাংলার সঙ্গে ইংরেজি শব্দ বেশি ব্যবহার করেন বলেই হয়তো এর নাম হয়েছে ‘বাংলিশ’। তবে এ নিয়ে অলোচনা-সমালোচনা সবই একটি মাসকে কেন্দ্র করেই। মহান ভাষা আন্দোলনের ফেব্রুয়ারি এলেই অনেকে সচেতন হন, লেখালেখি করেন। তারই ধারাবাহিকতায় বিষয়টি আদালত পর্যন্ত গড়ায়। সংবাদমাধ্যমে ভাষা বিকৃতির বিরুদ্ধে ও বাংলা ভাষার পবিত্রতা রক্ষায় ২০১২ সালে হাইকোর্ট স্বপ্রণোদিত হয়ে নির্দেশ দেন। এ ছাড়া আদালত বাংলা ভাষার দূষণ, বিকৃত উচ্চারণ, ভিন্ন ভাষার সুরে বাংলা উচ্চারণ, সঠিক শব্দ চয়ন না করা এবং বাংলা ভাষার অবক্ষয় রোধে কী কী পদক্ষেপ নেওয়া যেতে পারে, সে বিষয়ে সুপারিশ দিতে বাংলা একাডেমির সভাপতি অধ্যাপক আনিসুজ্জামানকে প্রধান করে একটি কমিটি করার আদেশ দেন। আদালতের এ আদেশের সর্বশেষ খবরে জানা গেল Continue reading

জীবনের হালখাতা

Hero-Image-LifeSciences-Generalনতুন বছর আসছে- এ খবরটা কি কেউ আমাদের দিয়েছে? উত্তরে কেউ হয়তো বলবেন, নতুন বছর আসার খবর দেওয়ার কী আছে; ডিসেম্বর এলেই আমরা বুঝতে পারি নতুন একটা বছর শুরু হবে। ফেসবুক ব্যবহারকারীরাও কি তা বলবেন? মনে হয় না। কারণ ফেসবুক তার ব্যবহারকারী প্রত্যেককে গত ডিসেম্বরের মাঝামাঝি থেকেই এ খবর দিয়েছে যে, বছরটা শেষ হয়ে যাচ্ছে। ফেসবুক বিষয়টা বছরের আনন্দময় মুহূর্তগুলো অ্যালবাম আকারে উপহার দিয়ে বুঝিয়েছে। তাছাড়া সংবাদমাধ্যমও ডিসেম্বরের দ্বিতীয়ার্ধ থেকেই পুরো বছরের ঘটনা সালতামামি আকারে পাঠক-দর্শকের কাছে নানাভাবে উপস্থাপন করেছে। তাতেও নতুন বছরের একটা আমেজ সবাই পেয়ে গেছে। Continue reading

পাসওয়ার্ড-সুরক্ষিত জগৎ

Passwordইন্টারনেটের কল্যাণে মানুষের এখন বাস্তব ও ভার্চুয়াল দুটি জগৎ। বাস্তবে মানুষ সুরক্ষার জন্য ঘর বানায়, তালা লাগায়; নাগরিকদের নিরাপত্তার জন্য রাষ্ট্র নিরাপত্তা বাহিনী নিয়োগ করে। আর ভার্চুয়াল জগৎ বা অনলাইনে নিরাপত্তার মাধ্যম পাসওয়ার্ড। এখানে ফেসবুক-মেইল, অন্য কোনো সামাজিক যোগাযোগ সাইট বা গুরুত্বপূর্ণ কোনো ওয়েবসাইটে নিজস্ব ভুবনে প্রবেশ করতে গেলেই এই পাসওয়ার্ডের প্রয়োজন। একই সঙ্গে প্রয়োজন হয় ইউজারনেমের। অবশ্য ইউজারনেম যে কেউ জানতে পারে; তবে কয়েকটি অক্ষর বা শব্দের সমষ্টি পাসওয়ার্ড কিন্তু ব্যক্তি ছাড়া আর কারও জানার সুযোগ নেই। এগুলোই আপনাকে নিরাপত্তা দিচ্ছে, এর সুরক্ষার দায়িত্বও আপনার। ৫ নভেম্বর নিউইয়র্ক টাইমসের টেকনোলজিতে প্রকাশিত ‘অগমেন্টিং ইউর পাসওয়ার্ড-প্রটেক্টেড ওয়ার্ল্ড’ শিরোনামের প্রতিবেদনটি এই পাসওয়ার্ড সুরক্ষার কথাই বলছে। Continue reading

আমলাতন্ত্রের জট খুলতে…

Facebookফেসবুক ব্যবহারে নানা বিড়ম্বনার বিষয়টি ব্যবহারকারী মাত্রই জানেন। বাসায় ফেসবুক ব্যবহারের ওপর কড়াকড়ি, অফিসে নিষেধাজ্ঞা, অভিভাবক-বসের নজরদারি, শিক্ষকদের খবরদারি ইত্যাদি প্রতিবন্ধকতার সম্মুখীন প্রতিনিয়ত হতে হয় অনেককে। এরপরও নানা ফাঁকফোকরে দিব্যি ফেসবুক ব্যবহার করেন সবাই। ফেসবুকের মজা যে বুঝেছে তাকে সত্যি এ থেকে নিবৃত্ত করা কঠিন! স্ট্যাটাস দেওয়ার পর কিংবা ছবি শেয়ারের পর একটা একটা লাইক গোনা, কমেন্টের জবাব দেওয়ার অনুভূতি বোঝানোর মতো নয়। পরিচিতজনের খবর ছবিসহ পাওয়ার এত সহজ উপায় যে আর নেই। নিজেকে তুলে ধরার, মত প্রকাশের, অন্যের সঙ্গে অনায়াস যোগাযোগের মাধ্যমটি ফেসবুক ছাড়া আর কী? মোবাইলে ইন্টারনেট সহজতর হওয়ার পর আমাদের দেশে ফেসবুক বেশি ছড়িয়েছে। এখানে বয়সের ভেদবিচার নেই। বড়দের পাশাপাশি ছোটদের ফেসবুক আইডিও ইদানীং দেখা যাচ্ছে। ফেসবুকের এই জোয়ারেও যখন অনেককে তা ব্যবহারে ঝামেলা পোহাতে হয় ঠিক সে সময়ই একটা খবর অন্তত ‘স্বস্তি’র বিষয় হতে পারে। সম্প্রতি আমাদের সচিবদের ফেসবুকে সক্রিয় হওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। Continue reading

অনেক কাজের কাজি

Technology in the handsমোবাইল, মুঠোফোন, সেলফোন যাই বলি, শব্দটি শুনলে মানসপটে কেবল একটি কথা বলার যন্ত্রই ভেসে ওঠে। এই মোবাইল যে দিনে দিনে আমাদের এ ধারণাকে ভেঙেচুরে অনেক কাজের কাজি হয়ে উঠছে তা কিন্তু খেয়াল করার মতো। কথা বলার যন্ত্র হিসেবে তো বটেই আজ যেন এমন কোনো কাজ নেই যা মোবাইল দ্বারা করা অসম্ভব। মোবাইলের এফএম রেডিওতে যেমন মানুষ খেলার ধারাভাষ্য শুনছেন, তেমনি মোবাইল ইন্টারনেটে ফেসবুকসহ নানা কাজ করছেন অনেকে। আবার মোবাইলে মুহূর্তেই টাকা পেয়ে যাচ্ছেন প্রত্যন্ত অঞ্চলের মানুষ। মোবাইলের জন্য এখন হাতঘড়ির দেখা মেলা ভার। Continue reading

ইন্টারনেটে দেখি বাংলা

Bangla-internetইন্টারনেটে প্রবেশ করলে আমরা এখন সহজেই বাংলা দেখি। ফেসবুকে বাংলায় স্ট্যাটাস দেখা যায় অহরহ। বাংলা ব্লগ ও সংবাদপত্রের ওয়েবসাইট তো আছেই, ই-মেইল আদান-প্রদানেও অনেকে বাংলা ব্যবহার করেন। গুগলের মতো সার্চ ইঞ্জিনগুলোতে বাংলায় খোঁজ করলে এখন যথেষ্ট তথ্য পাওয়া যায়। ইন্টারনেট সংশ্লিষ্ট ওয়েবসাইটগুলোও বাংলাকে গুরুত্ব দিচ্ছে; ফলে সেখানেও বাংলা দেখা যাচ্ছে। গুগলে যেমন বাংলায় আলাদাভাবে রয়েছে google.com.bd একইভাবে ফেসবুকেও বাংলায় ভাষান্তরের কাজ চলছে; চাইলে যে কেউ বাংলায় স্ট্যাটাস, নোট লেখার বাইরেও ফেসবুকের অপশনগুলো বাংলায় পেতে পারেন। এ ছাড়া তথ্যের জন্য রয়েছে বাংলা উইকিপিডিয়া। Continue reading