Tag Archives: উন্নয়ন

বাংলাদেশের উন্নতি থেকে পাকিস্তানের শিক্ষা

মূল: আবিদ হাসান

বর্তমান সরকারসহ পাকিস্তানের সব সরকারই সহায়তার জন্য বিশ্বব্যাপী ধরনা ধরেছে। আমরা ঋণে হাবুডুবু খাচ্ছি এবং প্রবৃদ্ধির হার একই বৃত্তে আবদ্ধ। অদূর ভবিষ্যতে এভাবেই চলবে বলে মনে হচ্ছে। কারণ, কোনো সরকারই পাকিস্তানের অর্থনীতিকে শক্তিশালী করার জন্য প্রয়োজনীয় সংস্কারের গভীরে দৃষ্টি দেয়নি। অথচ ২০ বছর আগেও এটি অকল্পনীয় ছিল- বাংলাদেশের মাথাপিছু আয় পাকিস্তানের প্রায় দ্বিগুণ হবে। বাংলাদেশের বর্তমান প্রবৃদ্ধি বজায় থাকলে দেশটি ২০৩০ সালে অর্থনীতির বড় শক্তি হয়ে উঠবে। আর পাকিস্তানের এই দুরবস্থা চলতে থাকলে ২০৩০ সালে বাংলাদেশ থেকে আমাদের সহায়তা নেওয়ার অবস্থা তৈরি হবে।

পাকিস্তানের এই মন্দাবস্থার দায় আমাদেরই। যদিও আমাদের নেতারা সহজেই আমাদের শত্রু এবং আইএমএফ ও বিশ্বব্যাংকের দোষ দিয়ে থাকেন। এটা অস্বীকার করা যাবে না, আইএমএফ কিংবা বিশ্বব্যাংকের দুর্বল নীতি ও মন্দ ঋণের গভীর খাদে রয়েছে পাকিস্তান। দুর্নীতি ছাড়াও সন্ত্রাসবাদের প্রভাব রয়েছে অর্থনীতিতে। কর্মক্ষমতায় দুর্বলতার ফলে দায়িত্বহীন ও অযৌক্তিক নীতি এবং উদ্যমহীন সংস্কার করা হচ্ছে। বেপরোয়া নীতির দুটি উদাহরণ হলো :জাতীয় ও বৈদেশিক ঋণের মাধ্যমে প্রাপ্ত অর্থের অধিক সরকারি ব্যয় এবং রপ্তানির তুলনায় অনেক বেশি আমদানিনির্ভরতা বাইরের ঋণও বাড়িয়ে তুলছে।

নানা দিক থেকে পাকিস্তানের সঙ্গে সাযুজ্য থাকায় বাংলাদেশের সাফল্য একটি ভালো উদাহরণ। একই ধর্ম, কাজের ক্ষেত্রে নৈতিকতায় ঘাটতি, নোংরা রাজনীতি, সুশাসনের অভাব, দুর্বল জনপ্রশাসন ব্যবস্থা, দুর্নীতি ও অভিজাতদের তোষণের নীতিতে দুই দেশের অবস্থান প্রায় সমান হলেও বাংলাদেশ এগিয়ে গেছে। গত ২০ বছরে বাংলাদেশের জিডিপি বেড়েছে কয়েক গুণ। বাংলাদেশের মাথাপিছু আয় যেখানে দুই হাজার ২২৭ মার্কিন ডলার, সেখানে পাকিস্তানের মাথাপিছু আয় মাত্র এক হাজার ১৯০ মার্কিন ডলার। বাংলাদেশের অবিশ্বাস্য অর্জন আর পাকিস্তানের দুর্যোগের পেছনের গল্প কী? Continue reading

বাংলাদেশ যেখানে অনুকরণীয়

মূল: ড. গ্রেগ মিলস
এক সাগর রক্তের বিনিময়ে ১৯৭১ সালে স্বাধীনতা অর্জনকারী বাংলাদেশ নানা সমস্যা মোকাবেলা করে আসছে। রাজনৈতিক অস্থিরতা, সর্বব্যাপী দুর্নীতি, দুর্বল অবকাঠামো ব্যবস্থাসহ বিদ্যুৎ ও পরিবহনে অস্থিরতা, ভোঁতা ও অসহায়ক আমলাতন্ত্র এবং কখনও কখনও উদ্যমহীন অর্থনৈতিক সংস্কার যার অন্যতম। এরই মধ্যে আমরা দেখলাম ২০১৬ সালে দেশটির রাজধানী ঢাকার একটি হোটেলে জামা’আতুল মুজাহিদীন নামের একটি সংগঠনের ৫ দুর্বৃত্ত হামলা চালিয়ে ইতালি ও জাপানিসহ ২০ জন জিম্মিকে হত্যা করে।
যা হোক, ১৬ কোটি জনসংখ্যার বাংলাদেশে ৬৫ শতাংশেরও বেশি মানুষ গ্রামে বাস করে। ধান সেখানে প্রধান ফসল। বন্যা, ঘূর্ণিঝড়সহ নানা প্রাকৃতিক দুর্যোগের মধ্য দিয়েই তাদের বাস।
এত সব সামাজিক, অর্থনৈতিক ও রাজনৈতিক সমস্যা থাকা সত্ত্বেও বাংলাদেশ গত ২০ বছরে বেশ উন্নতি লাভ করেছে। দেশটির বার্ষিক প্রবৃদ্ধি এখন ৬ শতাংশ, দারিদ্র্যের হারও কমছে সেখানে। গড় আয়ু বৃদ্ধি পেয়ে প্রায় ৭২ বছর হওয়া বাংলাদেশের পুষ্টিমান উন্নয়ন, মানুষের উচ্চ আয় ও সাক্ষরতার হার বৃদ্ধিরই প্রমাণ। Continue reading