Monthly Archives: মার্চ ২০১৯

নির্বাচন : উত্তর কোরিয়া স্টাইল

ভোট প্রদান পর্ব শেষ করে উত্তর কোরিয়ার প্রত্যেককে যোগ দিতে হয় এক আনন্দ উৎসবে

উত্তর কোরিয়ায় জাতীয় নির্বাচন অনুষ্ঠিত হলো রোববার। সাম্প্রতিক সময়ে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সঙ্গে উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং উনের বৈঠক মিডিয়ায় যতটা আলোচনায় এসেছে, তার সিকি ভাগও আলোচনায় আসেনি বর্তমান বিশ্বের অন্যতম পরমাণু ক্ষমতাধর দেশটির নির্বাচন। কারণ দেশটিতে চলছে একনায়কতান্ত্রিক শাসন। তারপরও সেখানে নির্বাচন হয়। পাঁচ বছর অন্তর নির্বাচন হতে হবে, এটাই দেশটির নেতা কিম জং উনের খেয়াল।

স্বাভাবিকভাবেই উত্তর কোরিয়ার নির্বাচনের ফল ভোটের আগে থেকেই সবার জানা। কিম জং উনের নেতৃত্বাধীন ওয়ার্কার্স পার্টি যাকেই মনোনয়ন দেবে, সে-ই ভোটে দাঁড়াবে। এখানে প্রার্থী একজন এবং তিনিই নির্বাচিত হবেন। আমাদের দেশে যেমন কোথাও প্রার্থী একজন হলে, তার কোনো প্রতিদ্বন্দ্বী না থাকলে তিনি স্বয়ংক্রিয়ভাবেই নির্বাচিত হয়ে যান। সেখানে এ নিয়ম নেই। নিয়ম হলো- প্রার্থী একজন থাকবেন, তাকেই সবাই ভোট দেবেন। এ জন্য উত্তর কোরিয়ার নির্বাচনকে সবাই বলছেন ‘রাবার স্ট্যাম্প’ ইলেকশন অর্থাৎ যেখানে ভোটারের কোনো বিচার-বিবেচনা নেই। ফলে দেশটিতে যেভাবে ভোট হয়, তা বিশ্বের জন্য কৌতূহলের বিষয়ই বটে। যুক্তরাজ্যভিত্তিক সংবাদমাধ্যম বিবিসি তাই নির্বাচনের দিন রোববার অনলাইনে একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করে। যার শিরোনাম বাংলায়- উত্তর কোরিয়ায় নির্বাচন মানে আসলে কী। যেখানে বলা হয়েছে, দেশটিতে ১৭ বছরের অধিক বয়স্ক প্রত্যেক নাগরিকের ভোট দেওয়া বাধ্যতামূলক। যদিও ব্যক্তির কিছু নেই, পার্টির মনোনীত ব্যক্তিকেই সবাই ভোট দেবেন। Continue reading