Monthly Archives: জুলাই ২০১৬

শান্তির জন্য বন্ধুতা

Friendshipবন্ধুত্ব দেখা যায় না, ছোঁয়া যায় না; অনুভব করা যায়। কারও সঙ্গে পাঁচ বছর থেকেও বন্ধুত্ব না হতে পারে। কারও সঙ্গে কোথাও সহযাত্রী হিসেবে যেতে ক্ষণিকের দেখায়ও বন্ধুত্ব হয়ে যেতে পারে। এটা এক ধরনের টান। কাছে না থাকলেও দূর থেকে সে টান অনুভব করে বলেই হয়তো একজন আরেকজনের সঙ্গে নানাভাবে যোগাযোগ করে; ভাব আদান-প্রদান করে, যা উভয়কে এক ধরনের প্রশান্তি দেয়। কাছে থাকলে বন্ধু বন্ধুকে সঙ্গ দেয়। সুখ-দুঃখ শেয়ার করে হালকা হয়। প্রয়োজনে একজন আরেকজনের পাশে দাঁড়ায়। জাতিসংঘের আজকের আন্তর্জাতিক বন্ধুত্ব দিবসও সে কথা বলছে। দিবসটি চালু হওয়ার গোড়ার কথাই হলো শান্তির সংস্কৃতি প্রচলন। বন্ধুত্ব তো সব রকম অশান্তি, দ্বন্দ্ব-সংঘাত মিটিয়ে পরস্পর শান্তি স্থাপন। জাতিসংঘ মহাসচিব এ দিবস উপলক্ষে যথার্থই বলেছেন_ আজ লোভ যখন আমাদের বসবাসের পরিবেশকে কলুষিত করছে, ধর্মান্ধতা যখন আমাদের রক্ত ঝরাচ্ছে, যখন নানাভাবে মানবাধিকার লঙ্ঘন হচ্ছে তখন বিশ্বের সবাইকে নিজেদের বাঁচাতেই বন্ধুত্বের সহমর্মিতায় এগিয়ে আসতে হবে।
বন্ধুত্বের মধ্যে ভালোবাসা, ত্যাগ, আপস ও মানিয়ে চলা থাকে। এসবের মধ্য দিয়ে যখন দু’জন সমানে চলে তখন দিন দিন বন্ধুত্বও গাঢ় হয়। মনীষীরা বলেন, প্রত্যেক নতুন জিনিসকেই উৎকৃষ্ট মনে হয়। আর বন্ধুত্ব যতই পুরাতন হয় ততই উৎকৃষ্ট ও গাঢ় হয়।
বন্ধুত্বের সঙ্গে কল্যাণ বিষয়টি বেশি প্রয়োজন। এক দেয়াল লিখন বলছে, যে তোমাকে মাদক অফার করে সে প্রকৃত বন্ধু হতে পারে না। এখানেই বোধ হয় সে প্রবাদটি প্রযোজ্য_ মানুষ চেনা যায় তার সঙ্গী-সাথী দেখে। Continue reading

লম্বা কিংবা খাটো

Tall_Small-peopleমানুষের বৈচিত্র্য তার ব্যক্তিত্বে, আচরণে, চরিত্রে এবং উচ্চতায়ও। যদিও দুনিয়ার এক মানুষের সঙ্গে অন্য মানুষের চেহারায় মিল না থাকলেও উচ্চতায় মিল থাকতে পারে। সেদিক থেকে উচ্চতাগত বৈচিত্র্য কম। তারপরও লম্বা, মধ্যম, খাটো_ তিন ধরনের বিশেষণে বিশেষায়িত করা যায়। এ বিশেষণ পৃথিবীর সবার জন্য সত্য। তবে ব্যক্তিগত হিসেবের বাইরে দেশ-অঞ্চলভেদেও পার্থক্য দেখা যায়। মঙ্গলবার বিবিসি অনলাইন উচ্চতা নিয়ে এক গবেষণার খবর দিয়েছে। তাতে দেখা যাচ্ছে, নেদারল্যান্ডসের পুরুষ ও লাটভিয়ার নারী সবচেয়ে বেশি লম্বা। ই-লাইফ জার্নালে প্রকাশিত গবেষণাটিতে উচ্চতায় গত একশ’ বছরের ট্রেন্ড বিশ্লেষণ করা হয়েছে। গবেষণায় বাংলাদেশ প্রসঙ্গও এসেছে। যেখানে বেঁটের তালিকায় বাংলাদেশের নারীরা রয়েছেন দ্বিতীয় স্তরে।

মানুষের উচ্চতা যেমন জিন ও পরিবেশগত বিষয়ের ওপর নির্ভর করে, তেমনি নির্ভর করে তার খাদ্য ও পুষ্টির ওপর। সার্বিক সুস্থতা ও হরমোনের ওঠানামার সঙ্গেও উচ্চতার সম্পর্ক রয়েছে। সাধারণত দেখা যায়, লম্বা মা-বাবার সন্তান লম্বা হয়। বেঁটে দম্পতির সন্তান বেঁটে হয়। তবে ব্যতিক্রমও রয়েছে। অনেক সময় লম্বা দম্পতির সন্তান যেমন বেঁটে হয়, তেমনি বেঁটে দম্পতির সন্তানও লম্বা হতে দেখা যায়।
উচ্চতার দিক থেকে বলা চলে, বাংলাদেশের মানুষের অবস্থান মাঝামাঝি পর্যায়ে। গালিভারসের গল্পের মতো Continue reading

এই তবে ছাগল!

Goat-friendকাউকে বোকা বোঝানোর জন্য অনেকে সাধারণত ছাগলের সঙ্গে তুলনা করেন। কাউকে হেয় প্রতিপন্ন করারও মোক্ষম শব্দ বোধ হয় ছাগল। ছাগলকে আমরা বোকা ভাবলেও বিজ্ঞানীরা বলছেন, ছাগল আসলে বুদ্ধিমান। আমরা যতটা বুদ্ধিমান ভাবি, ছাগল তার চেয়েও বেশি বুদ্ধিমান। গবেষণায় এও দেখা গেছে, ছাগল মানুষের সঙ্গে যোগাযোগ করতে পারে। ফলে বিজ্ঞানীরা বলছেন, ছাগল মানুষের সেরা বন্ধু। সম্প্রতি প্রভাবশালী ব্রিটিশ দৈনিক দ্য গার্ডিয়ান গবেষণার খবরে বলেছে, নো কিডিং, ম্যান’স নিউ বেস্ট ফ্রেন্ড ইজ এ গোট; ইয়ার্কি নয়, মানুষের নতুন সেরা বন্ধু একটি ছাগল। আর নিউজউইক লিখেছে, গোটস :ম্যান’স নিউ বেস্ট ফ্রেন্ড? সায়েন্স সেইস ইট’স পসিবল। বিজ্ঞান যে বলছে এটা সম্ভব, তার প্রমাণও দিয়েছে। যুক্তরাজ্যের রয়্যাল সোসাইটির জার্নাল বায়োলজি লেটার্সে প্রকাশিত প্রতিবেদনে জানা যায়, প্রশিক্ষণরত কয়েকটি ছাগলের সামনে একটি করে খাবারের বাক্স রাখা হয়, একটি বাদে বাকি সবক’টি ছাগলই কয়েকবারের চেষ্টায় বাক্সগুলো খুলতে সক্ষম হয়। তবে তার আগে দুয়েকবার চেষ্টা করে ব্যর্থ হওয়ার পর তারা কাছে থাকা মানুষের দিকে তাকায়। তাদের চাহনিতে ছিল বন্ধুত্বের আহ্বান। মানুষের দিকে তাকানোর মানে হচ্ছে তারা খুলতে ব্যর্থ। তাই সহযোগিতা প্রয়োজন। বিজ্ঞানীরা এও বলছেন, ঠিক একইভাবে তাকায় কুকুরও। ছাগল যখন মানুষের দিকে তাকায়, তার স্থিরদৃষ্টিতেই উভয়ের মাঝে একটি যোগাযোগ তৈরি হয়। ছাগল প্রভুভক্ত। তার চাহনি, লেজ নাড়াচাড়া করা কিংবা ডাকলে কাছে আসার মাধ্যমে ছাগল তার প্রমাণ দেয়। Continue reading