Monthly Archives: জুন ২০১৫

ছিটমহল: শিক্ষা থাকুক অগ্রাধিকারে

Chitmahal-edn

দাসিয়ারছড়া ছিটমহলের একটি প্রাক-প্রাথমিক শিক্ষাকেন্দ্র। ছবি: সমকাল

ছিটমহলের অন্ধকার যখন কাটতে শুরু করেছে তখন আলোই সেখানকার গন্তব্য। দুই দেশের তরফ থেকে আইনগত বাধা দূর হওয়ার কথা জেনে শুরুতেই ছিটমহলবাসী সে আলোর সন্ধান করেছেন। ৭ মে সর্বশেষ ভারতের লোকসভায় এ সংক্রান্ত বিল পাসের পর থেকেই তাই সংবাদমাধ্যমের কল্যাণে আমরা জানতে পারছি, সেখানে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান স্থাপনের জন্য ‘সাইনবোর্ড তোলার হিড়িক’। যদিও সেগুলো প্রস্তাবিত এবং প্রাথমিক পর্যায়ে কেবলই সাইনবোর্ড, তারপরও এর মাধ্যমে কেবল একটা বার্তাই ছিটমহলবাসী দিচ্ছেন যে, তারা দ্রুতই শিক্ষার আলোয় আলোকিত হতে চান। আর সর্বশেষ মঙ্গলবার (২৩ জুন) প্রকাশিত ‘খুলেছে শিক্ষার বন্ধ দরজা’ শিরোনামে সমকালের প্রতিবেদনটি যে তারই ধারাবাহিকতা। যেটি বলছে, ছিটমহলগুলোতে প্রাথমিকভাবে ইসলামিক ফাউন্ডেশন শিক্ষার কাজ হাতে নিয়েছে। তারা মসজিদভিত্তিক শিশু শিক্ষা ও গণশিক্ষা কার্যক্রম প্রকল্পের আওতায় প্রথম রমজান থেকেই ১০০টি প্রাক-প্রাথমিক শিক্ষা কেন্দ্র চালু করেছে। এটা অবশ্যই আশাজাগানিয়া খবর। যদিও তারা কেবল প্রাক-প্রাথমিক শিক্ষার ব্যবস্থা করছে এবং সেটা প্রয়োজনের তুলনায় হয়তো নগণ্য। Continue reading

জীবনের ঠিকানায় ‘মেঘবালকের চিঠি’

Megh-baloker-chithiমানুষ কতভাবেই না গল্প বলে! প্রতিটি মানুষের গল্প আলাদা। জীবনের বিচিত্র গল্পগুলো একটার সঙ্গে আরেকটা মেলে না। তারপরও মোটা দাগে কিছু বিষয়ে আমরা সাযুজ্য খুঁজে পাই। যেমন, ভালো-মন্দ, আনন্দ-বেদনা, সাফল্য-ব্যর্থতা, ভালোবাসা-অনাদর ইত্যাদি। সেদিক থেকে সোহেল নওরোজের ‘মেঘবালকের চিঠি’র পনেরোটি গল্প কারও না কারও জীবনের সঙ্গে মিলে যাওয়াই স্বাভাবিক। বুকপকেটের মুখগুলো, মেঘবতী, ঘ্রাণ, চার মাত্রার ভালোবাসা কিংবা দৌড় গল্প একেকটা জীবনের একেক অধ্যায়ের কথা। ঘ্রাণ গল্পটা পড়ে প্রত্যেকে হয়তো ফিরে যাবেন তার বিশ্ববিদ্যালয় জীবনে। কিংবা এখনও যারা হলে থাকেন, ঘুমানোর সময় মায়ের কষ্টে সেলাই করা কাঁথার ঘ্রাণ নেন, তাদের কাছে গল্পটি নিজেরই মনে হতে পারে। বইয়ের প্রতিটি গল্পই অন্যরকম। কোনোটা ভালোবাসার, কোনোটা সামাজিক, কোনোটা রোমান্টিক, কোনোটা কষ্টের আবার কোনোটা আনন্দের।

‘চন্দ্রস্নানে চলো’ নামেই রোমান্টিকতার গন্ধ। গল্পটা পড়ে পাঠক সেটা টের পাবেন। কিন্তু গল্পটা লেখক যেদিক থেকে টেনে এনেছেন সেখানে লেখকের মুনশিয়ানার তারিফ না করে পারা যায় না। Continue reading

প্রত্যেকে আমরা মাটির তরে

Desertification-poster2015মানুষসহ পৃথিবীর সব সৃষ্টির জন্ম ও বেঁচে থাকায় মাটির ভূমিকা অনুধাবনযোগ্য। মাটির তৈরি আমরা যে মাটির ওপর বসবাস করি, চলাফেরা করি এবং মাটিতে উৎপন্ন জিনিস খেয়ে বেঁচে আছি সে মাটির ভালো থাকাটা আমাদের স্বার্থেই অপরিহার্য। আজকের বিশ্ব মরুময়তা প্রতিরোধ দিবসে জাতিসংঘ ঠিক এ বিষয়টিকে সামনে রেখে স্লোগান করেছে_ ‘নো সাচ থিং এজ অ্যা ফ্রি লাঞ্চ- ইনভেস্ট ইন হেলদি সয়েলস’। আমরা এভাবে বলতে পারি, খাদ্য আসে মাটি থেকে- মাটির স্বাস্থ্য রক্ষায় বিনিয়োগ করুন। আমরা যা খাই তা তো আসলে ফ্রি আসে না। তাই খাদ্যের নিরাপত্তার জন্য হলেও মাটি ভালো রাখার কথা বলা হচ্ছে। যদিও আমাদের দ্বারাই এটি ক্ষতিগ্রস্ত হয়। প্রতিনিয়ত মাটি ক্ষয় হচ্ছে। নানাভাবে উর্বরতা হারাচ্ছে মাটি। জাতিসংঘ বলছে, পৃথিবীর ২৬০ কোটি মানুষ সরাসরি কৃষির ওপর নির্ভরশীল, অথচ কৃষিতে ব্যবহৃত জমির ৫২ শতাংশের মাটিই কোনো না কোনোভাবে ক্ষয়ের শিকার। এর ফলে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে মানুষ। Continue reading

‘গ্রেড’ নয়, আপনিই বড়

Life-Valuable‘ইউ আর নট ইউর মার্কস!’ শিরোনামে বিবিসি ট্রেন্ডিংয়ে ৩০ মের প্রতিবেদনটি ভারতের কৌতুক অভিনেতা বীর দাসের একটি ভিডিওকে কেন্দ্র করে প্রকাশিত। ইউটিউবে তার ‘অন ইউর মার্কস’ নামের ভিডিওটি ব্যাপক জনপ্রিয়তা পায়। আসলে ভিডিওটি তিনি এমন সময়ে প্রকাশ করেন যখন ভারতে একটি পাবলিক পরীক্ষার ফল প্রকাশ হয়। যেখানে দেখানো হয়েছে, পরীক্ষার ফল তেমন কিছু নয়। বীর দাস বরং তিন মিনিটের ভিডিওতে জীবনের অনেক কিছু দেখিয়েছেন। স্বপ্ন, মা-বাবা, মানুষ, যুদ্ধ, ভালোবাসা ইত্যাদি। অনেক ক্ষেত্রে ভিডিওটি আমাদের জন্যও প্রযোজ্য। সম্প্রতি আমাদের এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষার ফল প্রকাশ হয়েছে। এ পরীক্ষায় অনেকে জিপিএ ৫ পায়নি বলে কষ্ট পেয়েছে। আবার ১৩ ভাগ শিক্ষার্থী যাদের বলা হচ্ছে ‘অকৃতকার্য’, তাদের মনও ভালো থাকার কথা নয়। আর ফল নিয়ে সবচেয়ে ভয়ঙ্কর যে খবর সবার মন খারাপ করে দেয় তা হলো Continue reading

‘মোদি’ফাইড যোগব্যায়াম

Modi-Yogaভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির যোগব্যায়াম এখন আলোচনায়। ২৮ মে তিনি টুইট করেছেন, লেট’স ওয়ার্ক টুগেদার অ্যান্ড মেক ফার্স্ট এভার ইন্টারন্যাশনাল ডে অব ইয়োগা অ্যা সাকসেস। আই রিকোয়েস্ট পিপল ফ্রম অল ওয়াকস অব লাইফ টু অ্যাক্টিভলি পার্টিসিপেট। অর্থাৎ, আসুন সবাই মিলে একত্রে কাজ করি এবং প্রথম আন্তর্জাতিক যোগব্যায়াম দিবস সার্থক করে তুলি। এজন্য সব বয়সের মানুষকে সক্রিয় অংশগ্রহণের জন্য অনুরোধ করছি।

ইন্টারনেটে মোদির এই যোগব্যায়াম রহস্য খুঁজতে গিয়ে তার ব্যক্তিগত ওয়েবসাইটে হাজির। একেবারে তার মুখ থেকেই শোনা গেল সে কাহিনী। না, গুগল প্লাসের ভিডিওটি ইউটিউবে তার প্রধানমন্ত্রী হওয়ার অনেক আগেই আপলোড করা। নরেন্দ্রমোদি ডট ইন নামে তার ওয়েবসাইটে তা পোস্ট আকারে প্রকাশ হওয়ার সময়ও খুব কাছাকাছি; ৩১ আগস্ট ২০১২। Continue reading