Monthly Archives: সেপ্টেম্বর ২০১৪

আমলাতন্ত্রের জট খুলতে…

Facebookফেসবুক ব্যবহারে নানা বিড়ম্বনার বিষয়টি ব্যবহারকারী মাত্রই জানেন। বাসায় ফেসবুক ব্যবহারের ওপর কড়াকড়ি, অফিসে নিষেধাজ্ঞা, অভিভাবক-বসের নজরদারি, শিক্ষকদের খবরদারি ইত্যাদি প্রতিবন্ধকতার সম্মুখীন প্রতিনিয়ত হতে হয় অনেককে। এরপরও নানা ফাঁকফোকরে দিব্যি ফেসবুক ব্যবহার করেন সবাই। ফেসবুকের মজা যে বুঝেছে তাকে সত্যি এ থেকে নিবৃত্ত করা কঠিন! স্ট্যাটাস দেওয়ার পর কিংবা ছবি শেয়ারের পর একটা একটা লাইক গোনা, কমেন্টের জবাব দেওয়ার অনুভূতি বোঝানোর মতো নয়। পরিচিতজনের খবর ছবিসহ পাওয়ার এত সহজ উপায় যে আর নেই। নিজেকে তুলে ধরার, মত প্রকাশের, অন্যের সঙ্গে অনায়াস যোগাযোগের মাধ্যমটি ফেসবুক ছাড়া আর কী? মোবাইলে ইন্টারনেট সহজতর হওয়ার পর আমাদের দেশে ফেসবুক বেশি ছড়িয়েছে। এখানে বয়সের ভেদবিচার নেই। বড়দের পাশাপাশি ছোটদের ফেসবুক আইডিও ইদানীং দেখা যাচ্ছে। ফেসবুকের এই জোয়ারেও যখন অনেককে তা ব্যবহারে ঝামেলা পোহাতে হয় ঠিক সে সময়ই একটা খবর অন্তত ‘স্বস্তি’র বিষয় হতে পারে। সম্প্রতি আমাদের সচিবদের ফেসবুকে সক্রিয় হওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। Continue reading

স্কুলের পথে

Dhaka-traffic-jamস্কুলপড়ূয়া শিশুদের নিয়ে অভিভাবকদের চিন্তা অন্তহীন। সকালে সন্তানকে ঘুম থেকে উঠিয়ে, প্রস্তুত করে, খাইয়ে স্কুলে পেঁৗছানো পর্যন্ত সব কাজ তাদের করতে হয়। গ্রামে শিশুকে স্কুলে পেঁৗছানোর টেনশন খুব একটা না থাকলেও শহরে এ চিন্তা প্রায় সব পরিবারেই উদ্বেগের। সামর্থ্যানুযায়ী অভিভাবকরা সন্তানদের স্কুলে পেঁৗছে দিতে নিজস্ব গাড়ি, বাস, রিকশা, স্কুল পরিবহন কিংবা সিএনজি ব্যবহার করেন। পরিবহন যে যাই ব্যবহার করুক এর সঙ্গে সবাইকে যানজটের বিষয়টা অতিরিক্ত মাথায় রাখতে হয়। অন্তত ঢাকা শহরের জন্য এ যে অনিবার্য সত্য। ঢাকার যানজটের কথা কারও অজানা নয়। কোথাও জ্যাম লেগে গেলে কতক্ষণ বসে থাকতে হয় তা বলাই বাহুল্য। এ নিয়ে কোনো গবেষণা হয়েছে কিনা জানা নেই। তবে এ সংক্রান্ত ইংল্যান্ডের এক গবেষণার খবর আমাদের জন্য প্রাসঙ্গিক। ৩ সেপ্টেম্বর গার্ডিয়ানে প্রকাশিত প্রতিবেদনটির শিরোনাম Continue reading